img

হাইকোর্টের নির্দেশে ৫২ টি ভেজাল পণ্য প্রত্যাহার

/
/
/
424 Views

বাংলাদেশের অর্ধ শতাধিক পণ্য প্রত্যাহার করেছে হাইকোর্ট। বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) এক পরীক্ষায় ৫২ পণ্য গুণগত মান নিম্নমানের প্রমাণিত হওয়ায়। যে পণ্যগুলো প্রত্যাহার করা হয়েছে অবিলম্বে বাজার থেকে প্রত্যাহার করার নিদের্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট

এসব খাদ্যপণ্য বিক্রি ও সরবরাহে জড়িতদের বিরুদ্ধে কার্যকরি পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। জাতীয় ভোক্তা ও নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ অধিকার সংরক্ষণ অধিদ্ধপ্তরের প্রতি এই নির্দেশ দিয়েছে।

 

বিচারপতি রাজিক আল জলিল ও বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের সম্বনয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট বেঞ্চে একটি রিট প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আজ এক রুলনিয়ে এ আদেশ দেন। যতক্ষন না পর্যন্ত বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় পুনরায় উওীর্ণ হতে না পারবে ততদিন বাজারে কোন রকমের পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করণ করেত পারবেনা। মাদকবিরোধী অভিযানের মতো খাদ্য দ্রব্য ভেজাল মেশানোর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

৫২ টি পণ্য জব্দ ও প্রত্যাহার চেয়ে কনসাস কনজ্যুমার সোসইটির নিকট (সিসিএস) এর পক্ষ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি মো: শিহাব উদ্দিন খান বৃহস্পতিবার জনস্বার্থে এ রিট দায়ের করেন।

এটি দায়ের করা পর হাইকোর্ট নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের ও বিএসটিআইয়ের দুইকর্মকর্তার বক্তব্য শুনতে আজ সকালে আদালতে হাজির হতে বলেন। কোর্টের নির্দেশে আদালতে হাজির হলে তাদের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।

 

৩ ও ৪ই মে গণমাধ্যমে এক প্রকাশিত খবরে উল্লেখ করা হয়, সম্প্রতি ২৭ ধরণের ৪০৬ টি খাদ্য দ্রবের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং পরীক্ষা করেছ। এর মধ্যে ৩১৩ টি পণ্য পরীক্ষায় ফলাফল প্রকাশ করেছিল এর মধ্যে অনেক প্রতিষ্ঠানের ৫২ টি পণ্যের গুণগত মান একেভারেই নিম্ন মানের বলেছে। ২ই মে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মলনের এক প্রতিবেদনে প্রকাশ করে।

 

রমজান এর উপলক্ষে খোলা বাজার থেকে ৪০৬ টি পণ্য নমুনা ক্রয় করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে নেওয়া হয়। এর মধ্যে ৩১৩ টির রেজাল্ট ভাল দিয়েছে এবং ৫২ পণ্যের কোয়ালিটি রেজাল্ট অকৃতকার্য হয়েছে।

ভেজাল পণ্যগুলোর নাম:

 

নুরের আয়োডিনযুক্ত লবণ, মদীনার আয়োডিনযুক্ত লবণ, দাদা সুপারের আয়োডিনযুক্ত লবণ, অমৃতের লাচ্ছা সেমাই, জেদ্দার লাচ্ছা সেমাই, সূয়ের মরিচগুড়া, ডললিনের হলুদগুড়া, ডলফিনের মরিচগুড়া, কিরণের লাচ্ছা সেমাই, গ্রীন লেনের মধু, সান ফুডের হলুদগুড়া, মধুমতির আয়োডিনযুক্ত লবণ, মঞ্জিলের হলুদগুড়া, নিশিতা ফুডসের সুজি, বাঘাবাড়ীর স্পেশাল ঘি, মেহেদীর বিস্কুট, মক্কার চানাচুর, রূপসার দই, কিংয়ের ময়দা, মোল্লা সল্টের আয়োডিনযুক্ত লবণ, এসিআইর আয়োডিনযুক্ত লবণ, লাচ্ছা সেমাই, ওয়েল ফুডের, মিঠাইর লাচ্ছা সেমাই, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, মিষ্টিমেলা লাচ্ছা সেমাই, পিওর হাটহাজারী মরিচগুঁড়া. বনলতার ঘি, ড্যানিশের কারি পাউডার, প্রাণের কারি পাউডার, এসিআইর ধনিয়াগুড়া, ফ্রেশের হলুদগুড়া, প্রাণের হলুদগুড়া, ড্যানিশের হলুদগুড়া, জাহাঙ্গীর ফুড সফট ড্রিংক, শান্ত ফুডের সফট ড্রিংক পাউডার, প্রাণের লাচ্ছা সেমাই, ডুডলি নুডলস, দিঘী ড্রিংকিং ওয়াটার, আরার ডিউ ড্রিংকিং ওয়াটার, ডানকান ন্যাটারাল মিনারেল ওয়াটার, মর্ণ ডিউয়ের ড্রিংকিং ওয়াটার, মিজান ড্রিংকিং ওয়াটার, আল সাফির ড্রিংকিং ওয়াটার, আরা ফুডের ড্রিংকিং ওয়াটার, কাশেম ফুডের চিপস, বাংলাদেশ এডিবল অয়েলের সরিষার তেল, শবনমের সরিষার তেল, গ্রিন বি-চিংয়ের সরিষার তেল, সিটি অয়েলের সরিষার তেল

  • Facebook
  • Twitter
  • Google+
  • Linkedin
  • Pinterest

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This div height required for enabling the sticky sidebar